ওষুধ উৎপাদন বাড়াতে এনপিও-বিএসপিপির সমঝোতা

প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » ওষুধ উৎপাদন বাড়াতে এনপিও-বিএসপিপির সমঝোতা

mouনিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে ওষুধ উৎপাদন বৃদ্ধি, উৎপাদিত ওষুধের গুণগত মানোন্নয়ন এবং এই খাতে রফতানি প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যে যৌথ অংশীদারিত্বে কাজ করতে সম্মত হয়েছে ন্যাশনাল প্রোডাকটিভিটি অর্গানাইজেশন (এনপিও) এবং বাংলাদেশ সোসাইটি ফর ফার্মাসিউটিক্যাল প্রফেশনালস (বিএসপিপি)।

মঙ্গলবার এ লক্ষ্যে দুই পক্ষের মধ্যে একটি সমঝোতাস্মারক স্বাক্ষরিত হয়। শিল্পসচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহর উপস্থিতিতে সমঝোতাস্মারকে এনপিওর পক্ষে প্রতিষ্ঠানের পরিচালক এস এম. আশরাফুজ্জামান এবং বিএসপিপির পক্ষে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ইশতিয়াক মাহমুদ স্বাক্ষর করেন। শিল্প মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে এই অনুষ্ঠানে মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বিএসপিপির কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

সমঝোতা অনুযায়ী, ওষুধ শিল্পখাতে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে উভয় প্রতিষ্ঠান পারস্পরিক সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করবে। ওষুধ শিল্প প্রতিষ্ঠানের দক্ষতা বাড়াতে এনপিও এবং বিএসপিপির যৌথ উদ্যোগে প্রতিবছর কমপক্ষে দুটি টেকনিক্যাল এক্সপার্ট সার্ভিস প্রোগ্রাম (টিইসি) আয়োজন করা হবে। এ প্রশিক্ষণের ব্যয়ভার বিএসপিপি বহন করবে।

এছাড়া, দেশে বিদ্যমান ওষুধ শিল্প কারখানাগুলোর উৎপাদনশীলতা উন্নয়নের লক্ষ্যে বিএসপিপি কেন্দ্রীয়ভাবে প্রতিবছর ন্যূনতম দুটি প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন করবে। এসব কর্মশালায় এনপিও প্রয়োজনীয় সম্পদ ব্যক্তি (রিসোর্সপার্সন) পাঠানো ও কারিগরি সহায়তা দেবে। পাশাপাশি উভয় প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে প্রতিবছর ওষুধ শিল্পখাতের উন্নয়নে কমপক্ষে একটি ডেমো প্রকল্প গ্রহণ করবে। এ প্রকল্প প্রণয়নে এনপিও কারিগরি সহায়তা দেবে।

সমঝোতায় আরও বলা হয়, উভয় প্রতিষ্ঠান প্রতিবছর যৌথভাবে ২ অক্টোবর জাতীয় উৎপাদনশীলতা দিবস উদযাপন করবে। এনপিও প্রতিবছর ‘ন্যাশনাল প্রোডাক্টিভিটি অ্যান্ড কোয়ালিটি এক্সিলেন্স অ্যাওয়ার্ড’ প্রদানের বিজ্ঞপ্তি যথাসময়ে বিএসপিপির কার্যালয়ে পাঠাবে। সে অনুযায়ী সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে অবহিত এবং আবেদনে উদ্বুদ্ধ করবে বিএসপিপি।

অনুষ্ঠানে শিল্পসচিব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ্ এ সমঝোতাস্মারক স্বাক্ষরের উদ্যোগকে ওষুধ শিল্পখাতের উন্নয়নে একটি মাইলফলক হিসেবে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ১৬ কোটি জনসংখ্যার বাংলাদেশ দ্রুত অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির মহাসড়ক ধরে এগিয়ে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে শিল্পখাতসহ সব সেক্টরে ইতিবাচক পরিবর্তন এসেছে এবং বিশ্ব সম্প্রদায় বাংলাদেশের এ গুণগত পরিবর্তনের প্রশংসা করছে। সমঝোতাস্মারক স্বাক্ষরের ফলে দেশের ওষুধ শিল্পখাতে উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির প্রয়াস জোরদার হবে। এ দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে অন্যান্য খাতের উদ্যোক্তারাও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে এ ধরনের উদ্যোগে সামিল হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

March ২০২১
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Feb    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১