জেনে নিন পেট কমাবেন কীভাবে?

প্রচ্ছদ » স্বাস্থ্য » জেনে নিন পেট কমাবেন কীভাবে?

পুঁজিবাজার রিপোর্ট ডেস্ক : ব্যায়াম, হাঁটাহাঁটি থেকে শুরু করে নানা কসরত করছেন, তবু পেটের চর্বি বা মেদ কমছে না। এ সমস্যা অনেকের। এ বিষয়ে কয়েকটি তথ্য:

* সাঁতার কাটুন, হাঁটুন। নিয়মিত শারীরিক ব্যায়ামে ধীরে ধীরে পেটের মেদ কমবে।
* বিনোদনমূলক ব্যায়াম হিসেবে নাচের অভ্যাস মন্দ নয়। ঘরের ভেতর একা একা এটা করা যায়।
* যাঁদের পেট খুব থলথলে, তাঁদের কখনোই পেটে চাপ দিয়ে ব্যায়াম করা উচিত নয়। বেশি চাপের কারণে হার্নিয়া হয়ে যেতে পারে।
* বসা, শোয়া বা যেকোনো অবস্থায়ই পেটের মাংসপেশির সংকোচন করতে পারেন। প্রতিদিন দু-তিন দফায় পাঁচবার করে এ ব্যায়াম অনুশীলন করুন।
* সাইকেল চালাতে পারেন অথবা শোয়া অবস্থায় দুই পায়ের সাহায্যে সাইকেল চালনার অঙ্গভঙ্গি করুন।
* শোয়া অবস্থা থেকে মাথা উঠিয়ে ধীরে ধীরে দুই হাতের সাহায্যে দুপায়ের পাতা ছোঁয়ার চেষ্টা করুন। প্রথমে পায়ের পাতা পর্যন্ত যেতে না পারলে হাঁটু ভাঁজ করা অবস্থায় শুয়ে ব্যায়ামটি শুরু করুন। ধীরে ধীরে মাথা উঠিয়ে দুই হাতের সাহায্যে দুই হাঁটু স্পর্শ করুন। ব্যায়ামটি করতে করতে আপনি শোয়া থেকে বসা অবস্থায় চলে আসবেন। অভ্যস্ত হয়ে গেলে ধীরে ধীরে পা সোজা রেখে পায়ের পাতা স্পর্শ করতে চেষ্টা করুন। আবার এই ব্যায়ামে ডান হাত দিয়ে বাম পায়ের পাতা এবং বাম হাত দিয়ে ডান পায়ের পাতাও ধরতে চেষ্টা করতে পারেন।
* উপুড় হয়ে শুয়ে শরীরটাকে ধনুকের মতো বাঁকা করুন। এভাবে ১০ সেকেন্ড থাকুন। ধীরে ধীরে সোজা হোন।
* দাঁড়ানো অবস্থা থেকে ধীরে ধীরে ঝুঁকতে থাকুন। হাঁটু ভাঁজ না করে দুপায়ের পাতা ছোঁয়ার চেষ্টা করুন। এ ক্ষেত্রে দুই পা ফাঁকা করে ডান হাত দিয়ে বাম পায়ের পাতা এবং বাম হাত দিয়ে ডান পায়ের পাতাও ধরতে চেষ্টা করুন। প্রতিদিন দুই দফায় পাঁচবার করতে পারেন।
* শুয়ে থেকে পা দুটোকে সোজাভাবে ওপরের দিকে ওঠান। পা ওঠানোর সময় ঘাড় ওঠালে আরও ভালো। একবার বাম পা এবং একবার ডান পা উঠিয়েও ব্যায়ামটি করা যায়। প্রতিদিন দুই দফায় পাঁচবার।
* শুয়ে থাকা অবস্থায় দু-পা, দু-হাত ও মাথা ওঠান। এই ব্যায়ামের সময় হাত ও পা বেশ কাছাকাছি আনতে হবে। প্রতিদিন দুই দফায় পাঁচবার।

বিভাগীয় প্রধান, ফিজিক্যাল মেডিসিন ও রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস