ভবন ভাঙ্গতে শেষ সময় পেল বিজিএমইএ

প্রচ্ছদ » অর্থনীতি » ভবন ভাঙ্গতে শেষ সময় পেল বিজিএমইএ

bgmeaনিজস্ব প্রতিবেদক: বিজিএমইএ ভবন ভাঙাসহ আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে এক বছর সময় দিয়েছেন আদালত। এক বছর সময় দেওয়া হলে ভবিষ্যতে আর সময় চাওয়া হবে না—বিজিএমইএর দেওয়া এমন অঙ্গীকার আবেদন মঞ্জুর করেছেন আপিল বিভাগ। ফলে ভবন ভাঙতে আরও এক বছর সময় পেয়েছে বিজিএমইএ।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বিভাগ আজ সোমবার ওই আবেদন মঞ্জুর করে এ আদেশ দেন।

আদালতে বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারক সমিতির (বিজিএমইএ) পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী কামরুল হক সিদ্দিকী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী ইমতিয়াজ মইনুল ইসলাম।

২০১১ সালের ৩ এপ্রিল হাইকোর্টের রায়ে ১৬ তলার বিজিএমইএ ভবনকে ‘একটি ক্যানসার’ হিসেবে আখ্যায়িত করে এটি ভাঙার নির্দেশ দেওয়া হয়। এই নির্দেশের বিরুদ্ধে আপিল করে বিজিএমইএ। এর পর থেকে দীর্ঘ সময় ধরে আইনী লড়াই চলছে।

বিজিএমইএ ভবন ভাঙতে বারবার সময় চাইলে সর্বশেষ ২৭ মার্চ আদালত বলেন, ভবিষ্যতে আর সময় চাওয়া হবে না, এমন অঙ্গীকারনামা জমা দিলে সংগঠনটিকে এক বছর সময় দেওয়ার বিষয়টি বিবেচনা করা হতে পারে। এর প্রেক্ষিতে গত ২৮ মার্চ আপিল বিভাগে মুচলেকা দাখিল করে সংগঠনটি।

তবে এই মুচলেকা অস্পষ্ট হওয়ায় বিজিএমইএর আইনজীবী আবেদনটি (মুচলেকা) সংশোধন করে দিতে আদালতের কাছে সময় চান। আদালত বিষয়টি আজ সোমবার পর্যন্ত মুলতবি করেন। এই সময়ের মধ্যে বিজিএমইএকে সংশোধিত মুচলেকা জমা দিতে হবে।

ভবন ভাঙতে ও কার্যালয় অন্যত্র সরাতে ভবিষ্যতে আর সময় চাইবে না—এমন মুচলেকা দিতে গত ২৭ মার্চ বিজিএমইএকে আদেশ দেন আপিল বিভাগ। আদেশে বলা হয়, এমন মুচলেকা পেলে এক বছর সময় চাওয়ার আবেদন আপিল বিভাগ বিবেচনা করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

February ২০২১
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Jan    
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮