মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ হলেন তাহমিনা অথৈ

প্রচ্ছদ » বিনোদন » মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ হলেন তাহমিনা অথৈ

পুঁজিবাজার রিপোর্ট ডেস্ক: সরকারি-বেসরকারি সব মিলে দেশের শতাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ২৫ হাজার ছাত্রীদের মধ্য থেকে বাছাই করে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ ২০১৭’। চতুর্থবারের মতো আয়োজিত এই আসরে সবাইকে টপকে চ্যাম্পিয়ন অর্থাৎ মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ হলেন তাহমিনা অথৈ। তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের মাস্টার্সের ছাত্রী। চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় অথৈ পেয়েছেন ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ডের পক্ষ থেকে রিং, বইবাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকার বই ও ক্রাউন।

এছাড়া প্রথম রানার আপ হয়েছেন তাহসিন ওয়াজেদ এশা, যিনি নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এর ছাত্রী এবং ২য় রানার আপ হয়েছেন ফাতিমা ইয়াসমিন লিয়া। লিয়া রপ্তানিকারক বিশ্ববিদ্যালয় ফ্যাশন ও প্রযুক্তি বিভাগের ছাত্রী।

গতকাল (শুক্রবার) সন্ধ্যায় চ্যানেল আই ভবনে জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নির্বাচিত করা হয়েছে ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশকে। বাংলাদেশে এবারের প্রতিযোগিতার আয়োজক প্রতিষ্ঠান ছিল অপূর্ব ডটকম। প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আলোকচিত্র শিল্পী অপূর্ব আবদুল লতিফ। ইভেন্ট পার্টনার টেলিপ্রেস।

মিস ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়ন অথৈ বলেন, ফেসবুকে এই আয়োজনের পোস্ট দেখে অংশ নেই। আমার দুই বন্ধু এটা আমাকে জানিয়েছিল। অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন, অডিশন, বিভিন্ন পারফরমেন্স, গ্রুমিং এর পর চূড়ান্তফল আসে গতকাল। নির্মাতা মোস্তফা মনন ভাই আমাকে অনেক প্রেরণা দিয়েছেন। তার প্রেরণায় আমি অনেক বেশ আশাবাদী ছিলাম। টানা দু-মাস ধরে বিভিন্ন কার্যক্রমের পর কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পাই।’

তিনি বলেন, দেশের বাইরে গিয়ে বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশকে ও দেশের সংস্কৃতিকে তুলে ধরবো ভাবতেই ভালো লাগছে। সেখান থেকে ফিরে একজন ভালো অভিনেত্রী হবো পাশাপাশি সামাজিক কর্মকান্ডের সঙ্গে যুক্ত হবো।’

মূল প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে কম্বোডিয়াতে। তার আগে চূড়ান্ত গ্রুমিংয়ের জন্য ২৩ নভেম্বর বিশ্বের বিভিন্ন ১৩৯ টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সুন্দরী নিয়ে গ্রুমিং শুরু হবে দ. কোরিয়াতে। বাংলাদেশ থেকে সেখানে প্রতিনিধিত্ব করবেন অথৈ। এরপর কম্বোডিয়াতে অনুষ্ঠিত হবে ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি ২০১৭-এর গ্র্যান্ড ফিনালে আগামী ১৯ ডিসেম্বর।

মূল আসরে যিনি ওয়ার্ল্ড মিস ইউনিভার্সিটি হবেন তিনি সারা বিশ্বের জাতিসংঘের প্রতিনিধি হয়ে ছড়াবেন শান্তির বার্তা। গেল ২৮ বছর ধরে জাতিসংঘের পৃষ্ঠপোষকতায় এই সুন্দরী প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। এবার প্রতিযোগিতার ২৯তম আসর অনুষ্ঠিত হবে।

জাতিসংঘ সারাবিশ্বে শান্তি প্রতিষ্ঠায় কাজ করে। তাই তাদের পিস কিপিং প্রজেক্টে সারা বিশ্বের বিশ্ববিদ্যালয়ে পডুয়া মেয়েদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার জন্যে এই সুন্দরী প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হইয়েছে। ব্যতিক্রমী এই আয়োজনের মাধ্যমে খুঁজে বের করা হবে এমন একজনকে যিনি শুধু সৌন্দর্যেই বিচারেই নয়, সেই সাথে পড়াশোনা, সংষ্কৃতি এবং সামাজিক ক্ষেত্রেও স্বাক্ষর রাখবেন নিজের মেধার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

June ২০২১
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« May    
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০