যৌনকর্মীদের ‘কলার খোসায়’ বিশেষ বার্তা দিলেন ব্রিটিশ রাজবধূ

প্রচ্ছদ » আর্ন্তজাতিক » যৌনকর্মীদের ‘কলার খোসায়’ বিশেষ বার্তা দিলেন ব্রিটিশ রাজবধূ

bananaপুঁজিবাজার রিপোর্ট ডেস্ক: যৌনকর্মীদের উদ্দেশে ভালোবাসা জানিয়ে বিশেষ বার্তা দিয়েছেন ব্রিটিশ রাজবধূ মেগান মার্কেল। আর এ বার্তা দেয়ার মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছেন পুষ্টিকর খাদ্য কলা। যৌনকর্মীদের উদ্দেশে বিশেষ উপায়ে এ বার্তা দেয়ায় তা নিয়ে মেতেছেন নেটিজেনরা।

সমাজের পিছিয়ে পড়া ব্যক্তিদের উন্নতির জন্য বিভিন্ন চ্যারিটি অনুষ্ঠানে ব্রিটেনের রাজ পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতি নতুন কিছু নয়। প্রয়াত প্রিন্সেস ডায়নাকে এ রকম কাজে প্রায়ই নিয়োজিত থাকতে দেখা যেতো। এবার তারই দেখানো পথে হাঁটলেন মেগান। ব্রিস্টলের এক চ্যারিটি সংস্থার অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে যৌনকর্মীদের নিজের পায়ে দাঁড়াতে উদ্বুদ্ধ করার বার্তা দিয়েছেন তিনি। এসময় তার পাশে ছিলন স্বামী প্রিন্স হ্যারি।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, ‘যৌনকর্মীদের নিয়ে কাজ করা বেসরকারি দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘ওয়ানটুয়েন্টিফাইভ’ আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে শুক্রবার যোগ দিয়েছিলেন মেগান মার্কেল। সেখানে গিয়ে নারীদের জন্য খাবারের প্যাকেট তৈরির কাজে সহায়তা করেন তিনি।

খাবারের এসব প্যাকেটে অন্যান্য অনেক কিছুর সঙ্গে একটি করে কলাও ছিল। কলাগুলোতে বার্তা লিখে দেন মেগান মেরকেল। আর এই সিদ্ধান্তটি ছিল তার নিজেরই।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, খাবারের প্যাকেট তৈরির সময় ব্রিটিশ রাজবধূর মাথায় একটা আইডিয়া আসে। তিনি জানতে চান, কারও কাছে মার্কার পেন আছে আছে কিনা। এসময় তার হাতে মার্কার পেন তুলে দেয়া হলে তিনি কলার খোসায় বিশেষ বার্তা দেন।

কলার ওপর মেগান লেখেন, ‘আপনারা আমাদের প্রিয়’, ‘আপনারা সাহসী’, ‘আপনারা দৃঢ়তার অধিকারী’, আপনারা স্পেশাল ইত্যাদি। একেকটি কলার ওপর একেক বার্তা লেখেন মেগান। পরে সেগুলো খাবারের প্যাকেটে ভরে পাঠানো হয়।

এ সময় মেগান বলেন, ‘এভাবে বার্তা লিখে খাবার পাঠানোর ধারণাটি অসাধারণ। যুক্তরাষ্ট্রের একটি স্কুলে এ ধরনের প্রকল্প দেখেছি আমি। আমি দেখেছি একজন নারী স্কুলের লাঞ্চ প্রোগ্রামের খাবারে বিভিন্ন বার্তা দিচ্ছেন। এতে শিক্ষার্থীদের বেশ উৎসাহ পেতে দেখেছি আমি।’

পরে ওই দাতব্য প্রতিষ্ঠানও মেগানের এই উদ্যোগের প্রশংসা করে টুইট করে। তাতে বলা হয়েছে, মেগান আসায় তাঁরা সবাই খুব সম্মানিত বোধ করেছে।

তবে প্রশংসার পাশাপাশি বিভিন্ন নেতিবাচক মন্তব্যও করেছেন নেট ব্যবহারকারীরা। যুক্তরাজ্যভিত্তিক ট্যাবলয়েড পত্রিকা দ্য সানকে একজন যৌনকর্মী বলেছেন, ‘এ জায়গা বাদেও আরও অনেক জায়গা আছে যেখানে অসংখ্য এরকম ব্যক্তি আছেন যারা খাবার না পেয়ে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন। অথচ ব্রিটিশ রাজবধূ করছেন করছেন কি-ফলের খোসায় বার্তা দিচ্ছেন! তিনি তো এটা না করে অন্য কিছু করে আমাদের সাহায্য করতে পারতেন। অথচ তিনি যেটা করেছেন সেটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।’

এ কাজে ডাচেস অব সাসেক্সের সঙ্গে ছিলেন স্বামী প্রিন্স হ্যারি। এই অনুষ্ঠানের আগে তরুণদের উদ্দেশে একটি ভাষণও দিয়েছেন মেগান। বর্তমানে তিনি লন্ডনের ন্যাশনাল থিয়েটারের অন্যতম পৃষ্ঠপোষক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

September ২০২১
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Aug    
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০