লভ্যাংশের পরিমাণ বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান

প্রচ্ছদ » Breaking News || Slider || কোম্পানি সংবাদ » লভ্যাংশের পরিমাণ বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক : পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানি ব্যাংক খাতের কোম্পানি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান শহীদুল আহসান বলেছেন, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থরক্ষায় কাজ করে মার্কেন্টাইল ব্যাংক।চলতি বছর দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় থাকলে আগামীতে বিনিয়োগকারীদের লভ্যাংশের পরিমাণ বাড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত কোম্পানির ১৮তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) এই আশ্বাস দেন তিনি।

এজিএমে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের চেয়ারম্যান শহীদুল আহসান বলেন, বিনিয়োগকারীদের স্বার্থরক্ষায় কাজ করে মার্কেন্টাইল ব্যাংক। এক্ষেত্রে ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অধিকতর মনযোগী হতে হবে।

সভাপতির বক্তব্যে শহিদুল আহ্সান আরও বলেন, ২০১৬ সালে অর্জিত সাফল্যকে ব্যাংকের প্রতি শেয়ারহোল্ডার, গ্রাহকদের আস্থা, বাংলাদেশ ব্যাংকসহ সকল রেগুলেটরি সংস্থার সহযোগিতা এবং পরিচালনা পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের সম্মিলিত প্রচেষ্টার ফসল।

এসময় সেবার মান ও পরিধি এবং মানবসম্পদের দক্ষতা উত্তরোত্তর বৃদ্ধির পাশাপাশি উন্নত প্রযুক্তির ব্যবহার ও সুষ্ঠু ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করার মাধ্যমে মার্কেন্টাইল ব্যাংক একুশ শতকের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে সাফল্যের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে সক্ষম হবে বলে দৃঢ় আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

স্বাগত বক্তব্যে ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কাজী মসিহুর রহমান শেয়ারহোল্ডারদের উদ্দেশ্যে ২০১৬ সালে ব্যাংকের সামগ্রিক কার্যক্রম এবং ২০১৭ সালে ব্যাংকের ভবিষ্যত পরিকল্পনা তুলে ধরেন।

মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদ ঘোষিত ২০ শতাংশ লভ্যাংশের অনুমোদন দিয়েছেন শেয়ারহোল্ডাররা। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য ২০ শতাংশ লভ্যাংশ অনুমোদন দেয় মার্কেন্টাইল ব্যাংক লিমিডেটের শেয়ারহোল্ডররা। এর মধ্যে ১৫ শতাংশ নগদ এবং ৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ রয়েছে।

এজিএমে আরও উপস্থিত ছিলেন মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ারুল হক ও এ.কে.এম. সাহিদ রেজা, নির্বাহী কমিটির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম, অডিট কমিটির চেয়ারম্যান ড. মাহমুদ ওসমান ইমাম, ঝুঁকি ব্যবস্থাপনা কমিটির চেয়ারম্যান মোঃ শাহাবুদ্দিন আলম; পরিচালক- আলহাজ্ব আকরাম হোসেন (হুমায়ুন), এ.এস.এম. ফিরোজ আলম প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

November ২০২০
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Oct    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০