‘সুযোগগুলো না হারালে ফল ভিন্নও হতে পারতো’

প্রচ্ছদ » খেলা » ‘সুযোগগুলো না হারালে ফল ভিন্নও হতে পারতো’

পুঁজিবাজার রিপোর্ট ডেস্ক: পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে একবার, আরেকবার প্রশ্নটা উঠলো ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে। পুরস্কার বিতরণী মঞ্চেই প্রথম ইনিংসের ভুলগুলোর কথা স্মরণ করিয়ে দিলেন সঞ্চালক রবি শাস্ত্রী। জবাবে নিজেদের ফিল্ডিং নিয়ে অসন্তোষের কথাই জানালেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মুশফিকুর রহীম। স্বীকার করে নিলেন, প্রথম ইনিংসে পাওয়া সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারলে এই টেস্টের ফল ভিন্নও হতে পারতো।

হায়দরাবাদের ব্যাটিং উইকেটে টস জিতে ব্যাট করতে নামা ভারত শুরু থেকেই কিছু সুযোগ তৈরি করেছিল বাংলাদেশ। কখনও রান আউট, কখনও ক্যাচ কিংবা কখনও স্ট্যাম্পিং। ভারতের মতো বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দলের কাছ থেকে পাওয়া এই ছোট ছোট সুযোগগুলো কাজে লাগাতে না পারার কারণে বড় খেসারতই দিতে হয়েছে বাংলাদেশকে। ভারত শেষ পর্যন্ত প্রথম ইনিংসে ৬৮৭ রানের বিশাল স্কোর দাঁড় করিয়ে দেয় বাংলাদেশের সামনে।

মুশফিকুর রহীম মনে করেন, এই সুযোগগুলো কাজে লাগাতে না পারার কারণেই মূলত হারতে হয়েছে। যদি সুযোগগুলো কাজে লাগানো যেতো, তাহলে ম্যাচের চিত্র ভিন্নও হতে পারতো। রবি শাস্ত্রির প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে আমরা অনেকগুলো সুযোগ তৈরি করেছিলাম। যদি ওই সুযোগগুলো কাজে লাগিয়ে আমরা যদি পাঁচশ, সাড়ে পাঁচশ রানের মধ্যেও আটকাতে পারতাম, তাহলে হয়তো দ্বিতীয় ইনিংসে ওরা আরো একটা সেশন ব্যাট করতো। আমাদের ছাড়তো শেষ দিনে। তখন দ্বিতীয় ইনিংসে চার সেশনের বদলে তিন সেশন ব্যাট করতে হতো আমাদের। তখন ব্যাপারটি হয়তো অন্যরকম হতে পারতো।’

প্রথম ইনিংসে নিজেদের ব্যাটিং নিয়ে সন্তুষ্ট নন মুশফিক। আরও ভালো খেলা প্রয়োজন ছিল বলে মনে করেন তিনি। মুশফিক বলেন, ‘প্রথম ইনিংসে ১৫০ থেকে ১৭০ রান বেশি দিয়ে ফেলেছি আমরা। ব্যাটিংয়ে প্রথম ইনিংসে উইকেট দারুণ ছিল। প্রথম চার ব্যাটসম্যানের কেউ বড় স্কোর করলে আমরা ওদের প্রথম ইনিংসের রানের কাছাকাছি চলে যেতে পারতাম। অন্তত ৫৫০ তো করতে পারতামই।’

দ্বিতীয় ইনিংসে ৪৫৯ রান তাড়া করে যে জেতা সম্ভব নয়, সেটা আগেই যেন বুঝতে পেরেছেন মুশফিক। তিনি বলেন, ‘দ্বিতীয় ইনিংসে ওদের রান তাড়া করা খুব কঠিন। কারণ ভারতের হাতে এখন অনেক অপশন রয়েছে। শুধু স্পিনাররাই নয়, পেসাররাও ভালো করেছে। আশা করি আমরা এখান থেকে অনেক কিছু শিখতে পেরেছি এবং ভবিষ্যতে এগুলো কাজে লাগিয়ে আরও ভালো পারফরম্যান্স করতে পারবো।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Live Video

সম্পাদকীয়

অনুসন্ধানী

বিনিয়োগকারীর কথা

আর্কাইভস

November ২০২০
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
« Oct    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০